সারাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যার পানিতে বন্দি লাখ লাখ মানুষ। দেশের অধিকাংশ নদীগুলোতে পানির তীব্র স্রোতের কারণে শুরু হয়েছে ভাঙন। খরস্রোতা যমুনা নদীতেও ভয়াবহ রূপ নিয়েছে ভাঙন।

যমুনার এই ভয়াবহ ভাঙনের চিত্র দেখা গেল সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চলে। সেখানকার খাসরাজবাড়ী বাজার মুহূর্তেই চলে গেল যমুনার পেটে।বাজারের ব্যবসায়ী হোসেন আলী বলেন, ‘চোখের সামনে ভাইসা গেল আমার দোকানঘর। চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই কইরবার পারিলাম না।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোনও কিছু বুঝে উঠবার আগেই ওই বাজারের হোসেন মিয়াসহ কোব্বাত, রহিম, নরু, মিথুনদের ব্যবসায়িক দোকান ঘরগুলো যমুনার পেটে চলে যায়।

খাসরাজবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম জানান, গত তিনদিন যাবৎ ওই বাজারের ঘরগুলোতে পানি উঠেছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘরগুলো নিচের দিকে দেবে যায়। ফলে ঘর থেকে কিছুই বের করতে পারেননি ব্যবসায়ীরা।
 
ওই গ্রামের গ্রামপুলিশ কার্তিক চন্দ্র জানান, সকালে আমি কাজে বাড়ির বাইরে যাই। দুপুরে ফিরে এসে দেখি আমার বাড়ি নাই। দুইদিন আগে আমার পরিবারকে অন্য জায়গায় পাঠিয়ে ছিলাম বলে তারা রক্ষা পেয়েছে।

ব্যবসায়ী কোব্বাত ব্যাপারী জানান, পানির নিচ দিয়ে কখন ভাঙন শুরু হয়েছে তা বুঝতে পারিনি। ঘরের সঙ্গে দোকানের মালামাল সব নদীতে ভেসে গেছে।

এদিকে মাইবাড়ী ইউনিয়নের ঢেকুরিয়া বাজার সংলগ্ন ওয়াপদা বাঁধ চুইয়ে পানি বের হচ্ছে। যেকোনও সময় ওই স্থানে ধস নামতে পারে বলে জানান, ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম।

তিনি আরও জানান, ঝুকিপূর্ণ স্থানে বালির বস্তা ফেলে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

3 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here